স্টিল লাইফ পেইন্টিং

0

চিত্রকর্ম এমন একটি বিষয় যা কমবেশি সবার পছন্দ। এই শিল্পটি ছোট-বড় সবাইকেই আকৃষ্ট করে থাকে। এমন অনেক স্বল্প অভিজ্ঞতার চিত্র শিল্পী রয়েছেন যারা তাদের সীমিত জ্ঞানটুকু অল্পবয়সী ছেলেমেয়েদের শেখানোর চেষ্টা করেন এবং কর্মজীবনের সূচনা হিসেবে নিতে চান। সেইসব প্রশংসনীয় ও সাহসী ব্যক্তিদের জন্য কিছু নির্দেশনা আমরা এ অধ্যায়-এ আলোচনা করবো।

এর মাধ্যমে আমরা জানতে পারবো কিভাবে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের ছবি আঁকানো শেখানো যায়।

বেশরিভাগ সময় পেইন্টিং শেখানোর দায়িত্ব এমন শিক্ষকদের দেয়া হয় যাদের এই ব্যাপারে খুব সীমিত জ্ঞান রয়েছে। সকল ব্যবসা-বাণিজ্যের পরিচালক ও শিশুদের শিক্ষা প্রদানের সুযোগ সুবিধা মাধ্যমিক স্কুল শিক্ষকদের কাছ থেকে আশা করা হয়। আর উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষকদের কাছ থেকে উন্নতমানের কিছু কাজ আশা করা হয়।

যুক্তরাজ্যে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের শিল্পকলার জন্য কিছু সময় বণ্টন করে দেয়া হয়। এটি সাধারণত সপ্তাহে এক থেকে দুই ঘণ্টা হয়ে থাকে। যেহেতু চিত্র শিল্পটা অনেক সময়ের ব্যাপার সেহেতু প্র্রতিটি পদক্ষেপে একটি করে কৌশল অবলম্বন করা উচিত। তবে প্রতিটি আর্ট শিক্ষক শিক্ষা প্রদানের ক্ষেত্রে কিছু পদ্ধতি বা কৌশল গ্রহণ করে থাকেন।

আঁকাআঁকির বিষয়টি খুবই সোজা একটি জিনিস। টেলিভিশন এবং ওয়েব সাইডের বিভিন্ন ডকুমেন্টারি দেখে শেখা যায়। যেমন টেবিলে একটি ফুলদানি রেখে ছাত্র-ছাত্রীদের সেটাই আঁকতে বলা যেতে পারে।

চিত্রশিল্পের ক্ষেত্রে সবচেয়ে জরুরি যেটা সেটা হচ্ছে: প্রথমে ভালোভাবে নিশ্চিত হতে হবে আমি কি শিখতে চাচ্ছি। তারপর বিষয়টি আঁকা শুরু করতে হবে। আরো পরিষ্কার করে বললে, শিল্পকলা হচ্ছে নিম্নে লিখিত বিষয়গুলোর ভারসাম্য রক্ষার শিক্ষা:

• প্রথমে চিত্রাকারকে দেখার চোখ তৈরি করতে হবে
• শিল্পকলার জন্য দক্ষতা ও কৌশল তৈরি করা
• সৃজনশীলতার লালন-পালন ও প্রতিপালন করা
• শিল্পকলার জ্ঞান উপলব্ধি করা
• কাজ শুরু পূর্বে একটি নকশা তৈরি করা
• শিক্ষার্থীদে কিভাবে শেখাবো তার পরিকল্পনা করা

স্টিল লাইফ পেইন্টিং হচ্ছে ছবি আঁকা শেখার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও মূল বিষয়।

পেন্সিল স্টিল লাইফ:

একটি টেবিলে চারটি মজাদার বস্তু রাখবো। তারপর বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল থেকে ছবিগুলোর স্কেচ তৈরি করতে হবে। এরপর ছবিটি স্টিল লাইফ আকারে সেড দিতে হবে। এতে ছবি আঁকতে ২-৪ ঘণ্টা সময় লাগবে।

Pencil Still Life

কালীর স্টিল লাইফ:

এক্ষেত্রেও টেবিলে চারটি মজাদার বস্তু রাখবো। তারপর বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল থেকে ছবিগুলো pen and nib with Indian ink দ্বারা আঁকতে হবে। এরপর ছবিটি স্টিল লাইফ আকারে সেড দিতে হবে। এতে ছবি আঁকতে ২-৪ ঘণ্টা সময় লাগবে।

Colour Still life

কাঠকয়লা স্টিফ লাইফ পেইন্টিং:

এক্ষেত্রেও টেবিলে চারটি মজাদার বস্তু রাখবো। তারপর চারদকি থেকে ছবিগুলো পরিদর্শন করে সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিকটি বের করতে হবে। এক্ষেত্রে ছবিটি চক দিয়ে আঁকতে হবে। এ পদ্ধতিতে ছবি আঁকতে সাধারণত ২ থেকে ৪ ঘণ্টা সময় লেগে থাকে।

Coal Still

মোমের স্টিল লাইফ পেইন্টং:

এ ছবিটি আঁকার ক্ষেত্রে আমরা প্রথমে চারটি বস্তু একটি জায়গায় রাখবো। তারপর ভালোভাবে এর গঠনটি পর্যবক্ষেণ করতে হবে এবং এর আকর্ষণীয় দিকটি বের করবো। এক্ষেত্রে ছবিটি আমরা মোমের রং দিয়ে আঁকবো এবং ছবির ভেতরে প্র্রতিটি অংশ ভরাট করবো। এতে ছবি আঁকতে ২-৪ ঘণ্টা সময় লাগবে।

Mom Still

Tonal Exercise:

এ ছবিটি আঁকার ক্ষেত্রে আমরা প্রথমে চারটি বস্তু একটি জায়গায় রাখবো। তারপর ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করে এ সবচেয়ে দৃশ্যমান বিষয়টি বের করতে হবে। এ ছবি আঁকার ক্ষেত্রে যেকোনো একটি রং ব্যবহার করতে হবে। তবে এর ব্যাকগ্রাউন্ডটা কালো ও বেসটা সাদা রং করতে হবে। এ ছবি আঁকতেও ২-৪ ঘণ্টা সময় লাগবে।

Tonal Still

টুকরা কাপড় বা কাগজ দ্বারা স্টিল লাইফ:

এ ছবিটি আমরা রং-বেরংয়ের টুকরা কাপড় বা কাগজ দিয়ে আঁকবো। এক্ষেত্রে প্রথমে চারটি বস্তু একটি টেবিলের উপর রাখবো। তারপর ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করে এর সবচেয়ে দৃশ্যমান বিষয়টি বের করতে হবে। এ ছবি রং করার ক্ষেত্রে আমরা বিভিন্ন রংয়ের কাগজ ব্যবহার করবো।

Paper Still

Comment

comments

Comments are closed.