ডিজিটাল ডিভাইস চুরি !!! মোবাইল ফোনটি যখন বিপদ

0

আসলেই বিষয়টি ভিশন রকম দু:চিন্তার। আপনার হাতে যে মোবাইল ফোনটি বা ডিজিটাল ডিভাইস টি রয়েছে সেটা ব্যবহার করা যেমন সহজ সেটার জন্য বিপদে পড়াটাও খুব সহজ। চলুন এমন কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করি ।
আমরা অনেকেই মোবাইল ফোন পুরানো হলে বেচে দেই কিন্তু আমরা যার কাছে বিক্রি করছি তিনি কে ? তিনি যদি কোন সন্ত্রাসী কাজে এই মোবাইল ব্যবহার করে তাহলে তার দায় নিতে হবে আপনাকে । কারন আপনি যখন মোবাইলটি ব্যবহার করেছেন তখন মোবাইল কোম্পানি আপনার সিমের মাধ্যমে ip address / IMEI Number টি নিয়ে নিচ্ছে। তাই যিনি কিনলেন তিনি যদি এই সেট ব্যবহার করে কোন অপরাধ করে তাহলে পুলিশ ধরবে আপনাকে। তাই ফোন সেট বিক্র করার সময় ক্রেতা সর্ম্পকে জেনে নিন এবং তার ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ফটোকপি নিয়ে রাখুন। পুরানো মোবাইল কেনার সময়ও এনআইডি সংগ্রহ করুন । কারন যদি বিক্রেতা আগে কোন অপরাধ করে থাকে বা চুরি করা মোবাইল হয় তাহলে বিপদটা হবে আপনার।

আপনার মোবাইল ফোনটি যদি চুরি হয় ??? তাহলে দেরি করবেন না সাথে সাথে যে কারো মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে আপনার ফেসবুক, ই-মেইল থেকে লগ আউট করে ফেলুন এবং Password পালটে ফেলুন। তারপর থানায় যেয়ে একটা সাধারন ডায়েরি করুন, মনে করে সেই IMEA নাম্বারটা উল্লেখ করবেন ডায়েরিতে। তাই মোবাইল কেনার সময় দোকান থেকে যে রসিদটা দেয়া হয় সেটা হারাবেন না।

এবার আসি মোবাইল ফোন নস্ট হলে আমরা কি করি ??? দোকানে নিয়ে যাই এবং ঠিক করে নিয়ে আসি, তাই না ??? কিন্তু এর মাঝে কি কি হয় আমরা জানি না। আমরা অনেকেই অনেক ব্যক্তিগত ছবি মোবাইলে সংরক্ষণ করি কিন্তু যিনি মোবাইলটা ঠিক করছেন তিনি চাইলেই এই ছবি, ভিডিওগুলো কপি করতে পারে এবং ইচ্ছা মত ব্যবহার করতে পারে এবং এমন কিছু ঘটনা ঘটেছেও । ইন্টারনেটে এমন ভুরি ভুরি ছবি আছে যা কিনা ইচ্ছাকৃত দেয়া হয়নি, এভাবেই না জেনে বেহাত হয়েছে । কিন্তু বহু মানুষের জীবন ধ্বংস হয়ে গেছে এই সাধারন ভুলটির জন্য। তাই আমরা যখন ফোন সেটটি কোথাও ঠিক করতে দেব তখন সেটার ম্যামরি কার্ডটি রেখে দেব । সেট ঠিক করতে ম্যামরি কার্ড প্রয়োজন হয় না। তবে যদি সেট চুরি হয় তখনতো ম্যামরি কার্ড সহই চোর নিয়ে যাবে । তাই একমাত্র উপায় আমাদের এই ধরনের ব্যক্তিগত ছবি মোবাইল না রাখাই ভালো।

ল্যাপটপ বা ডেক্সটপ কম্পিউটারের বেলায়েও এগুলো ফলো করতে হবে আমাদের। IMEI ( International Mobile Equipment Identity) অথবা ip address (Internet Protocol address) সর্ম্পকে একেবারে ছোট এবং সাধারন করে বলি । এগুলো মাধ্যমে আপনার পরিচয়, ঠিকানা এবং আপনি কখন ফোন বা ইন্টারনেট চালিয়েছেন সেটা খুব সমজেই বোঝা যায়। ip address (Internet Protocol address)  সর্ম্পকে বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন এখানে  ip address (Internet Protocol address)

 

Comment

comments

Comments are closed.