ফটোগ্রাফার হবেন ? শুরু করুন ভাবনা দিয়ে

0

ফটোগ্রাফার হবেন ?  আমরা ক্যামেরা নিয়ে ছবি তুলতে যাই কিন্তু কি তুলবো বা কেন তুলবো ? ছবি কি কথা বলে ? ছবিটিতে কিইবা আছে। এই ভাবনা না থাকলে খুব তাড়াতাড়িই আবার ফিরে আসতে হয়। তাই ভাবনার জায়গাটা আগে তৈারী করতে হবে। লোক দেখানো ফটোগ্রাফার নয় মনের খোরাক মেটান ছবি তুলে। নিচে কিছু বিষয় আপনার চিন্তার খোরাক করে দিচ্ছি। আশা করছি আপনি যদি চর্চা করে খুব অল্প দিনেই ফটোগ্রাফির আনন্দটা পাবেন। তবে বিষয়গুলি চর্চা করতে হবে।

আবেগ নির্ণয় করুন এবং পরিকল্পনা করুন: ফটোগ্রাফিতে সফল হতে হলে আপনাকে একদম নিরপেক্ষ ভাবে দৃশ্যের আবেদনটা নির্ণয় করতে হবে। আবেগের তাড়নায় নিজের জায়গা থেকে একচুলও নড়া যাবে না। তাই থাকতে হবে আবেগ নির্ণয়ের ক্ষমতা আর সঠিক পরিকল্পনা। আপনাকে লক্ষ্যে স্থির থেকে উপযুক্ত পরিকল্পনা করে এগোতে হবে।

ক্যামেরার সঙ্গে থাকুন: আপনার ক্যামেরা সকল ব্যবহার উত্তম রূপে অবগত হোন। কোন মেন্যু দিয়ে কী হয়, কোন অপশনটির কাজ কী কোনটিই যেন বাকি না থাকে আর সব সময় সাথে রাখুন ক্যামেরা।

ফটোগ্রাফির টেকনিকগুলো জানুন: যতটা সম্ভব ফটোগ্রাফির টেকনিকগুলো শিখুন। পয়েন্ট, শট, ক্যামেরা ইত্যাদি সম্পর্কে যতটা পারেন জ্ঞান অর্জন করতে থাকুন।

এডিট বা ছবি সম্পাদনা করা শিখুন: আপনি বেসিক সফটওয়্যার থেকে সম্পাদনার অনেক কিছুই শিখতে পারবেন। কমপক্ষে আপনি ফটোশপের মত সফটওয়্যার থেকে সম্পাদনা বেসিক শিক্ষা নিতে পারবেন।

ফটোগ্রাফার হিসেবে চোখ ও মন তৈরি করুন: ভাল যন্ত্রপাতি কিংবা ভাল ক্যামেরা না থাকলেও শুধু মন আর চোখ অর্থাৎ নজর থাকলেই আপনি একটি ভাল ছবি তুলতে পারবেন। ক্যামেরা ফ্রেমের থেকে আপনার মন আর চোখের বিশ্লেষণ করার ক্ষমতাটাই আসল। সুতরাং ভাল ফটোগ্রাফারদের সঙ্গে কথা বলুন, তাদের মন আর নজর সম্পর্কে ধারণা নিন যাতে তাদের মত দৃষ্টি আপনারও হয়ে ওঠে।

ফটোগ্রাফির ইতিহাস জানুন: ফটোগ্রাফির ইতিহাস সম্পর্কে জানুন। কোথা থেকে এলো, কে কে এর পথিকৃৎ, কবে থেকে উন্নতি লাভ করলো এসব তথ্য জানুন। এখানে দুটি বইয়ের নাম উল্লেখ করছি। The History of Photography: From 1839 to the PresentA World History of Photography

শ্রেষ্ঠ ফটোগ্রাফার: আপনাকে পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ফটোগ্রাফারদের সম্পর্কেও জানতে হবে। তাদের দৃষ্টি, কর্ম, জীবন, পেশা, আদর্শ ইত্যাদি আপনার ফটোগ্রাফিতে প্রভাব ফেলবে। আপনাকে গড়ে তুলতে পারে তাদের মত করে।

বর্তমানের প্রথম সারির ফটোগ্রাফার সম্পর্কে জানুন: আগের দিনের শ্রেষ্ঠ ফটোগ্রাফারের পাশাপাশি বর্তমানের ফটোগ্রাফারদের সম্পর্কেও জানুন। তারা কিভাবে গড়ে উঠলেন সেটাও আপনার ফটোগ্রাফিতে কাজে দিবে। এখানে দুটি বইয়ের নাম উল্লেখ করছি। আপনাকে এটাও জানতে হবে যে কেন তারা সফল হলেন, কেন তাদের ধৈর্য্যের বাধ ভাঙেনি। Sketching Light: An Illustrated Tour of the Possibilities of Flash. – Joe McNallyUnderstanding Exposure: How to Shoot Great Photographs with Any Camera: Bryan Peterson

স্থানীয় ফটোগ্রাফি ক্লাবে যোগ দিন: স্থানীয় কোনো ফটোগ্রাফি ক্লাবে যোগ দেওয়াটা হবে সফল হওয়ার গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। এতে আপনার বিভিন্ন বিষয় অন্যদের সঙ্গে আদান প্রদানের মাধ্যমে অনেক কিছু শিখতে পারবেন। ফটোগ্রাফারের মন অর্জন করতে পারবেন।

ভাল একজন ফটোগ্রাফার বন্ধু বা পরামর্শদাতা খুঁজুন: ক্লাবের মধ্যে থেকে একজনকে বন্ধু বানিয়ে নিন। তার সাথে ছবি তুলুন, শেয়ার করুন, এক সঙ্গে কাজ করুন। এক বা একাধিক পরামর্শদাতা বের করুন। তাদের কাছ থেকে কোনো না কোনো শিক্ষা পাবেনই।

ফটোগ্রাফির কনফারেন্সেগুলোতে অংশ নিন: একজন সফল ফটোগ্রাফার হতে চাইলে আপনাকে স্থানীয়, জাতীয় কিংবা আন্তর্জাতিক যে কোনো প্রদর্শনী বা সেমিনারে অংশ নিতে হবে। এ ধরনের কনফারেন্সেও আপনার সরব উপস্থিতি জরুরী।

প্রদর্শনী দেখুন: বিভিন্ন আলোকচিত্র প্রদর্শনী দেখুন। সেগুলোর রং, ধরন, দৃষ্টিভঙ্গি, বিষয়বস্তু এসব লক্ষ্য করুন।

প্রতিযোগিতায় অংশ নিন:  অনেক সময়ই আলোকচিত্রের প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। সেগুলোতে অংশ নিন ও অন্যদের সঙ্গে আপনার ছবির তারতম্য বুঝুন।

আপনার পেশাকে উন্নত করুন: আপনাকে ভাবতে হবে পেশা হিসেবে ফটোগ্রাফিকে কতদূর এগিয়ে নিতে পারলেন। আপনাকে পেশাদার ফটোগ্রাফার হতে হবে। পেশাকে দিনকে দিন এগিয়ে নিতে হবে। ক্যামেরা নিয়ে আপনার কাজ হবে একদম সময় নিয়ন্ত্রণ করে। দৈনিক, সাপ্তাহিক, মাসিক সবই হবে নির্দিষ্ট সময় মেনে। এক্ষেত্রে অনিয়ম করা চলবে না। গুছিয়ে কাজ করুন। নিজেকে চ্যালেঞ্জ করুন- আপনি পারবেন। সব কাটিয়ে আপনি আপনার পেশাকে এগিয়ে নেবেন। সব সময়ই ফটোগ্রাফিকে আনন্দের সঙ্গে নিবেন। বিরক্ত হবেন না, ধৈর্য্য হারাবেন না। দেখুন কত আনন্দ এই সৃজনশীল কাজটির মাঝে।

জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায় ফ্রিল্যান্স ফটোগ্রাফার

জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়
ফ্রিল্যান্স ফটোগ্রাফার

 

Comment

comments

Comments are closed.