ইন্টেরিয়র ডিজাইনার । আয় এবং ভবিষ্যৎ । ক্যারিয়ার সাজেশন

0

নিজের গৃহকোণটা একটু গোছানো থাকবে, বারান্দাটা ছোট্ট হলেও সাজানো থাকবে গাছগাছালিতে, শোবার ঘরটায় ভোরের আলো এসে গড়াগড়ি খাবে- এমন স্বপ্ন সবাই দেখেন।  অথবা বিরাট অট্টালিকায় যখন অফিসের রুমটাকে একটু অন্যরকম দেখতে ইচ্ছা হয়? সীমিত পরিসর আর সাধ্যের মধ্যে পছন্দসই ঘর গোছানোর কাজটাই ইন্টেরিয়র ডিজাইনার করে থাকেন।  দিনে দিনে ইন্টেরিয়র ডিজাইনারদের কাজের ব্যাপ্তি আর সুযোগ অনেক বেড়েছে; তৈরি হচ্ছে নতুন নতুন ফার্ম।  সৃজনশীলতা আর দক্ষতা কাজে লাগিয়ে আগ্রহী যে কেউ এ পেশায় গড়তে পারেন বর্ণিল ক্যারিয়ার।

ইন্টেরিয়র ডিজাইন শব্দটি এসেছে লাতিন শব্দ ইনট্রো থেকে, যার অর্থ- ভেতর বা অন্দর।  এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ডিজাইন শব্দটি, যার অর্থ নকশা।  এই দুটি শব্দ একত্রিত করলে হয় ইন্টেরিয়র ডিজাইন, যার আভিধানিক অর্থ দাঁড়ায় অভ্যন্তরীণ নকশা বা অন্দরমহলের সাজ।  তবে সাধারণত ইন্টেরিয়র ডিজাইন বলতে ঘর গোছানোকে বুঝি আমরা।  বাস্তবে শুধু ঘর গোছানো নয়, ইন্টেরিয়র ডিজাইন শব্দ দুটি আরও ব্যাপক অর্থে ব্যবহৃত হয়।  সহজে বলতে গেলে অফিস, শোরুম, রেস্তোরাঁ বা বাসায় দেয়ালের রঙ, মানানসই আসবাবপত্রের ডিজাইন ও রঙ থেকে শুরু করে স্বল্প পরিসরের জায়গাকে কীভাবে বেশি করে ব্যবহার করা যায়, সে বিষয়ে যাবতীয় ডিজাইন ও বাস্তবায়ন করাটাই ইন্টেরিয়র ডিজাইনারের কাজ।

ধন্যবাদ আমাদের সাথে থাকার জন্য।  আমাদের কমেন্ট করুন , লাইক দিয়ে শেয়ার করুন এবং আগামি ভিডিওতে আমাদের সাথে থাকতে অবস্যই সাবস্ক্রাইব করুন এখনি।  ভালো থাকুন, সৃষ্টিশীল থাকুন আর নিজের মনমত পেশায় নিজেকে গড়ে তুলুন।

Comment

comments

Comments are closed.